Preaload Image

সহস্র উদ্যোক্তা সম্মেলন ২০২০’- এর ধারণাপত্র

অফুরন্ত বিনিয়োগ উন্নয়ন ও সম্ভাবনার দেশ বাংলাদেশ। এ সম্ভাবনাকে বাস্তবে রূপ দেয়ার জন্য প্রয়োজন যথাযথ প্রয়াস। বিনিয়োগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে বর্তমান সরকার ইতোমধ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। বর্তমানে দেশে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার ৮% এর উপরে। প্রবৃদ্ধির এই হার সহজেই দুই অংকে উন্নীত করার মাধ্যমে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়া এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য বেসরকারি  খাতে বিনিয়োগ বৃদ্ধি করা অপরিহার্য । দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের স্রোতধারায় জনসংখ্যার গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে শিক্ষিত বেকার তরুণ সমাজ। উদ্যোক্তা সৃষ্টির মাধ্যমে যুব-প্রজন্মকে অর্থনৈতিক ধারায় সম্পৃক্ত করা সম্ভব হলে বেসরকারী খাতে বিনিয়োগ বিকাশ ও প্রসারের মাধ্যমে তা অর্থনীতিতে ফলপ্রসূ ভূমিকা রাখতে সক্ষম। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, আমাদের তরুণ প্রজন্মের রয়েছে উদ্যোক্তা হওয়ার মতো মেধা, উৎকর্ষতা, প্রশিক্ষণ এবং ঝুঁকি নেয়ার অদম্য সাহস, কিন্তু প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা, আর্থিক সক্ষমতা ও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে অনেকেই ইচ্ছা সত্ত্বেও উদ্যোক্তা হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করতে পারে না। ফলে সফল উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে ওঠার মতো প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও অনুকূল পরিবেশ তৈরির বিকল্প নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের গভর্নিং বোর্ডের প্রথম বোর্ড সভায় নতুন উদ্যোক্তা সৃজনের মাধ্যমে এন্ড লিংকেজ ডেভেলপমেন্টের উপর গুরুত্বারোপ করেন। বোড© সভার উক্ত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (BIDA) কর্তৃক “উদ্যোক্তা ‍সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন” শীর্ষক প্রকল্পটি গ্রহণ করা হয়। উল্লেখ্য যে, প্রকল্পটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ১০টি বিশেষ উদ্যোগ এর অন্যতম উদ্যোগ ‘বিনিয়োগ বিকাশ’ এবং এ সরকারের  নির্বাচনি ইশতেহারে বর্ণিত একটি অঙ্গীকার “তারুণ্যের শক্তি, বাংলাদেশের সমৃদ্ধি”- এর চেতনার প্রতিফলন।

এ প্রকল্পের অধীনে উদ্যোক্তা প্রশিক্ষণ কার্যক্রম দেশের ৬৪ জেলায় চলমান। উক্ত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দেশের শহর ও গ্রামাঞ্চলের বিনিয়োগে আগ্রহী সম্ভাবনাময় বেকার এবং শিক্ষিত যুব পুরুষ ও মহিলাদের বিনিয়োগ সংক্রান্ত তথ্য প্রদান ও প্রচলিত আইন পদ্ধতি, বিধি-বিধান, নিয়ম-কানুন ও মূলধনের সংস্থান ইত্যাদি বিষয়ে উপযুক্ত প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। ‍ইতোমধ্যে, সারাদেশে আট হাজারেরও অধিক প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। উক্ত প্রশিক্ষণ শেষে যে সকল প্রশিক্ষণার্থী উদ্যোক্তা হিসেবে তাদের অভিযাত্রা শুরু করেছে তাদের মধ্য হতে ১০০০ (সহস্র) জন উদ্যোক্তা বাছাই করে তাদের অংশগ্রহণে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হচ্ছে।

এ সম্মেলনের মাধ্যমে দেশের ৬৪ জেলা হতে আগত নবীন উদ্যোক্তাদের –

  • স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত এ “সহস্র উদ্যোক্তা সম্মেলন ২০২০” এর মাধ্যমে নবীন উদ্যোক্তাদের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় সম্পৃক্ত করার মধ্য দিয়ে জাতির পিতার স্বপ্ন – সুখী সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ বিনির্মান করা।
  • খাতভিত্তিক অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ব্যবসায়ী প্রতিনিধিগণের সাথে সংযুক্তি স্থাপন এবং নবীন উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিভিন্ন জিজ্ঞাসার সমাধান দেয়া হবে
  • বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগণের সাথে নবীন উদ্যোক্তাদের সংযুক্তি স্থাপন এবং বিনিয়োগের বিষয়ক ঋণ প্রদান সম্পর্কিত প্রশ্নের জবাব দেয়া হবে
  • অনুষ্ঠানটিতে নবীন উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগে আরোও উদ্বুদ্ধকরণের লক্ষ্যে তাদের গৃহিত উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে সনদ প্রদান করা হবে।

অংশগ্রহনকারীবৃন্দ:

১। উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্পের ৬৪ জেলা থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত বাছাইকৃত ১০০০ জন উদ্যোক্তা

২। ৬৪ জেলার প্রশিক্ষণ সমন্বয়কবৃন্দ

৩। উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন (ESDP)’র প্রকল্পের কর্মকর্তাগণ

৪। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (BIDA)’র কর্মকর্তাগণ

৫। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ

৬। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ

৭। বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ

৮। সম্ভাবনাময় খাতভিত্তিক অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যবসায়িক প্রতিনিধিগণ

৯। সফল নারী উদ্যোক্তাগণ

১০। বিভিন্ন চেম্বার অব কমার্স এর প্রতিনিধিগণ

অনুষ্ঠানের অতিথিবৃন্দ:

প্রধান অতিথি:

মাননীয় মন্ত্রী/উপদেষ্টা

 বিশেষ অতিথি:

মাননীয় প্রতিমন্ত্রী/ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাগণ/বেসরকারি খাতের প্রাজ্ঞ ব্যক্তিবর্গ

 সভাপতি:

নির্বাহী চেয়ারম্যান

বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (BIDA)

ভেন্যু:

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র (BICC)

অনুষ্ঠানসূচী (সম্ভাব্য)

সকাল ৯:০০ হতে ৯:৪৫ ঘটিকা পর্যন্ত

অংশগ্রহণকারীবৃন্দের আসন গ্রহণ

সকাল ৯:৪৫ হতে ১০:০০ ঘটিকা পর্যন্ত

আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দের আসন গ্রহণ

সকাল ১০:০০ হতে ১১:০০ ঘটিকা পর্যন্ত

স্বাগত বক্তব্য

আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দের বক্তব্য

প্রধান অতিথির বক্তব্য

এবং অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা

সকাল ১১:০০ হতে ১১:৩০ ঘটিকা পর্যন্ত 

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে জাতির

পিতার উপর নির্মিত বিভিন্ন ভিডিওচিত্র প্রদর্শন

সকাল ১১:৩০ হতে ১:০০ ঘটিকা পর্যন্ত

উন্মুক্ত আলোচনা

(এ পর্যায়ে নবীন উদ্যোক্তারা তাদের খাতভিত্তিক বিভিন্ন জিজ্ঞাসা উপস্থাপন করবেন।)

 

দুপুর ১:০০ হতে ২:০০ ঘটিকা পর্যন্ত                  

নামাজ ও দুপুরের খাবারের বিরতি

 

দুপুর ২:০০ হতে ৩:০০ ঘটিকা পর্যন্ত

খাতভিত্তিক অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ব্যবসায়ী প্রতিনিধিগণ কর্তৃক নবীন

উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিভিন্ন জিজ্ঞাসার উত্তর

দুপুর ৩:০০ হতে ৩:৩০ ঘটিকা পর্যন্ত

বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগণ কর্তৃক নবীন উদ্যোক্তাদের ঋণ প্রদান সংক্রান্ত বিভিন্ন জিজ্ঞাসার উত্তর

বিকাল ‍৩:৩০ হতে ৪:০০ ঘটিকা পর্যন্ত

মাননীয় প্রধান অতিথি কর্তৃক নবীন উদ্যোক্তাদের সনদ বিতরণ

বিকাল ‍৪:০০ হতে ৪:১৫ ঘটিকা পর্যন্ত

চা বিরতি

বিকাল ‍৪:১৫ হতে ৫:০০ ঘটিকা পর্যন্ত

স্টল পরিদর্শন (এক্ষেত্রে নবীন উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন উদ্ভাবনী আইডিয়াসমূহ সম্মানিত অতিথিবৃন্দ এবং প্রাজ্ঞ ব্যবসায়িক প্রতিনিধিবৃন্দ কর্তৃক পরিদর্শন ও প্রয়োজনীয় দিকনিদের্শনা প্রদান)

বিকাল ‍৫:০০ হতে ৬:০০ ঘটিকা পর্যন্ত

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও অনুষ্ঠানের সমাপনী ঘোষণা